খাগড়াছড়িতে দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার ৮, বিদ্রোহী ১ ও স্বতন্ত্র ১ বিজয়ী

ইউপি নির্বাচন,পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি,আওয়ামী লীগ,চেয়ারম্যান,মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ,মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন,সিন্ধুকছড়ি ইউনিয়ন,মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন,নৌকা,ctg news,Chattogram news,ctg news24,bd news,bd news24,bd breaking news,bd news today,cox'bazer news, চট্টগ্রাম নিউজ,Bandarban,Rangamati,

মোহাম্মদ কেফায়েত উল্লাহ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি  

পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির দশ ইউপিতে উৎসবমূখর ও শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত ৮ জন, বিদ্রোহী প্রার্থী ১জন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ১ জন বিজয়ী হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) মধ্যরাতের দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের অডিটোরিয়ামে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মুহাম্মদ আশরাফুল আলম বেসরকারিভাবে  নৌকা প্রতীকের ৮ জন এবং বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র ২ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করেন।

এর আগে সকাল ৮টার দিকে ভোটগ্রহণ শুরু হলে মাটিরাঙ্গা উপজেলার বড়নাল ও তবলছড়ি ইউনিয়নের কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্ন সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে। তবলছড়ি ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও  আনারস প্রতীকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় আনারস প্রতীকের পক্ষের ৪ জনকে আহত অবস্থায় দেখা গেছে।

 দায়িত্বরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের হস্তক্ষেপে পরিবেশ শান্ত হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবুল কাশেম ভুইয়ার সমর্থকেরা মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী হোসেনকে দুই দফা মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। তবলছড়ি ও বড়নাল ইউনিয়নের ফলাফল ঘোষণা করতে গিয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থা বিরাজ করছিল নির্বাচন অফিস ও সংশ্লিষ্ট দুই ইউপির ভোটারদের মধ্যে। 

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, তাইন্দং ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো. পেয়ার আহাম্মদ মজুমদার ৫৪৬৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবীর পেয়েছেন ১০৬০ ভোট। তবলছড়ি ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবুল কাশেম ভুইয়া ৫০৩১ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুর মোহাম্মদ পেয়েছেন ৫০২০ ভোট। বড়নাল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. ইলিয়াছ ২৩০১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী আওয়ামীলীগ মনোনীত মো. ইউনুছ মিয়া পেয়েছেন ২০৫৮ ভোট। আমতলী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো: আবদুল গনি নৌকা প্রতীক নিয়ে ৩১১১ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. জমির আলী ভূইঁয়া পেয়েছেন ১৮২৬ ভোট। গোমতি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো. তফাজ্জল হোসেন নৌকা প্রতীক নিয়ে ৫০৮১ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. ফারুক হোসেন লিটন পেয়েছেন ২২১৭ ভোট। বেলছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো. রহমত উল্ল্যাহ নৌকা প্রতীক নিয়ে ৫৯১০ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

 তার নিকটতম আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. মামুন মিয়া পেয়েছেন ৯১৮ ভোট। মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হেমেন্দ্র ত্রিপুরা নৌকা প্রতীক নিয়ে ৪০১২ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ত্রিপন জয় ত্রিপুরা পেয়েছেন ২১০০ ভোট।

অপরদিকে গুইমারা উপজেলার  সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নির্মল নারায়ন ত্রিপুরা, সিন্ধুকছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী রেদাক মারমা ও হাফছড়ি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মংশে চৌধুরী বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.