ব্যাংক কর্মকর্তা কারাগারে স্ত্রীর মামলায়

ব্যাংক কর্মকর্তা কারাগারে স্ত্রীর মামলায়

সাবেক স্ত্রীর করা নির্যাতন ও যৌতুকের মামলায় রাজশাহীর আদালত এক ব্যাংক কর্মকর্তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। তার নাম এসএম মশিউর রহমান। তিনি অগ্রণী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখার সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার।

মামলার বাদী তাসমীন এহসান সোনালী ব্যাংকের রাজশাহী শহরের গ্রেটার রোড শাখার সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার।

তাসমীন এহসান স্বামীর বিরুদ্ধে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি ও নির্যাতনের অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

মঙ্গলবার এ মামলায় রাজশাহী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন মশিউর। এ সময় আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক আবুল হাশেম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আসামি জামিনের আবেদন করেছিলেন। তবে আদালতের বিচারক মো. মনসুর আলম আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

গত বছরের অক্টোবরে তাসমীন এহসান সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেছিলেন, ২০২০ সালের ১১ সেপ্টেম্বর ২০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে তাকে বেদম মারপিট করেন মশিউর রহমান। ইস্ত্রি দিয়ে তার হাতও পুড়িয়ে দেন। এ নিয়ে তিনি মামলা করেন। পরে মশিউর তাকে তালাকনামা পাঠান। তিনি এক সেনা কর্মকর্তার সাবেক স্ত্রীকে বিয়েও করেছেন। তাসনীম ও তার সন্তানকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদে মশিউর রহমান হুমকি দিয়ে আসছিলেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.