খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় চার দোকান ও দুই বসতবাড়ি আগুনে পুড়ে ছাই

মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স,মাটিরাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস,bd news,ctg news, Chattogram news,bd news24, ctg news24, bd breaking news,

মোহাম্মদ কেফায়েত উল্লাহ(খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি)

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় চারটি দোকান ও দুটি বসতবাড়ি আগুনে পুড়ে ছাই হওয়ার ঘটনা ঘটেছে । শুক্রবার (১১ জুন) দিবাগত রাত তিনটার দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গেইটের দোকানগুলোতে অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় পঞ্চাশ লাখ টাকারও বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয় বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ও বাড়ীওয়ালারা। 

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ও বাড়ীওয়ালারা হচ্ছেন ফার্মেসী ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন ও সাদ্দাম হোসেন, মুদি দোকানি আবদুল হালিম, হোটেল ব্যবসায়ী মিন্টু মিয়া, বাড়ীওয়ালা সাইয়েদ আহমদ ও আবুল বশর প্তমুখ। 

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সারাদিনের ব্যস্ততা শেষে সবাই যখন রাতের বেলায় যে যার বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলেন, তখনই এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে থাকতে পারে ধারণা করা হচ্ছে। মুহুর্তেই আগুনের লেলিহান শিখায় সর্বস্বান্ত হয়ে গেছেন চার দোকানী।

ক্ষতিগ্রস্ত ফার্মেসি ব্যবসায়ী মোহাম্মদ রুবেল হোসেন জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে বাড়ি থেকে এসে পৌছার আগেই আমার দোকানের সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। অগ্নিকাণ্ডে তিল তিল করে গড়ে তোলা আমার সব শেষ হয়ে গেছে। আমার পক্ষে আর ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব হবে কিনা জানিনা।

মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মিজানুর রহমান খোকন জানান, একটি ওষুধের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।  এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ পঞ্চাশ লাখ টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে জানান তিনি।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পরপরই খাগড়াছড়ি ও মাটিরাঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে আসলেও ততক্ষণে সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

মাটিরাঙ্গা ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার দীপক কান্তি বড়ুয়া বলেন, বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে, শুক্রবার গভীররাতে সংঘটিত অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো. শামছুল হক, 

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশেদ খান ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মিজানুর রহমান খোকন। এসময় তারা ক্ষতিগ্রস্তদের সমবেদনা জানান ও সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.